পেন্ডিং ডিলেট এক্সপায়ার্ড ডোমেইন ডোমেইন ব্যাকঅর্ডার কি

ডোমেইন পেন্ডিং ডিলেট – এক্সপায়ার্ড ডোমেইন – ডোমেইন ব্যাকঅর্ডার কি?

ডোমেইন ইনভেস্টররা প্রতিনিয়ত নানানভাবে তাদের প্রোটফোলিও তে ভ্যালুয়েবল ডোমেইন জমা করতে থাকেন যা পরবর্তিতে কয়েক গুন বেশি রির্টান দেওয়ার সম্ভাবনা তৈরি করে। ডোমেইনের জীবনচক্র লিখায় আপনারা দেখেছেন কিভাবে একটি ডোমেইন বিভিন্ন ধাপ হয়ে আবার রেজিস্ট্রেশন এর জন্য উন্মুক্ত হয়। আজকের লিখায় থাকছে কিভাবে আপনি পেন্ডিং ডিলিট, ব্যাকঅর্ডার, ডিলিট ডোমেইন থেকে ভাল ভাল ডোমেইন কম খরচে রেজিস্ট্রেশন করে নিতে পারেন।

পেন্ডিং ডিলেট- গ্রেস পিরিয়ড বা অতিরিক্ত সময়কালেও যদি ডোমেইন এর মালিক অতিরিক্ত চার্জ দিয়ে ডোমেইন টি রিনিউ না করে তাহলে ডোমেইনটি চলে যায় পেন্ডিং ডিলিট অপশন এ। এখানে কমবেশি ৫দিন ডোমেইনটি অবস্থান করে। ডোমেইনিয়ার কিংবা যে কেউ এ সময়কালে এখান থেকে ডোমেইনটি নেয়ার জন্য ব্যাক অর্ডার কিংবা ডিলিট হওয়ার অপেক্ষায় থাকে। পেন্ডিং ডিলিট ডোমেইন এর লিস্ট দেখার জন্য অনলাইনে অনেক ধরনের টুল রয়েছে। এর মাঝে এক্সপেয়ার্ড ডোমেইনস ডট নেট expireddomains.net এবং নেম ইনভেস্টর ডট কম nameinvestor.com এই দুইটি সাইট থেকে দেখতে পারেন। নেম ইনভেস্টর সাইটে আপনার যদি এপিক একাউন্ট থাকে তাহলে আর নতুন করে একাউন্ট করতে হবে না আর এক্সপেয়ার্ড ডোমেইনস ডট নেট একটি একাউন্ট খুলে রাখবেন। সেখানে যেয়ে ফিল্টার করে অনেক ডোমেইন থেকে ভ্যালুয়েবল ডোমেইনগুলা লিস্ট করে ব্যাকঅর্ডার কিংবা ডিলিট হওয়ার জন্য অপেক্ষা করবেন। কবে নাগাদ ডোমেইনটি ডিলিট হবে সেটি দেখার জন্য বাল্ক এসইও টুলস ডট কমের এই লিংকটিতে গেলে www.bulkseotools.com/bulk-domain-drop-date-checker.php আপনি তারিখ দেখতে পাবেন। এখানে আরেকটি বিষয় ডট কম এবং ডট নেট ডোমেইন মূলত উল্লিখিত ডেটের বাংলাদেশ সময় রাত ১২ টায় ড্রপ অথবা ব্যাক অর্ডার করলে সেই কোম্পানীর কাছে চলে যাবে।

ডিলেট ডোমেইন- ডোমেইন এর জীবনচক্র লিখায় দেখিয়েছি কিভাবে একটি ডোমেইন ডিলেট হয়ে পুনরায় হ্যান্ড রেজি করার জন্য উন্মুক্ত হয়। প্রতিদিন হাজার হাজার ডোমেইন ড্রপ হয়ে যায়। এখান থেকে আপনি ভাল ভ্যালুয়েবল ডোমেইন চাইলে হ্যান্ড রেজি করে পুনরায় বিক্রির জন্য বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে লিস্টিং করতে পারেন। প্রতিদিনের ডিলিট ডোমেইন এর লিস্ট দেখার জন্য এক্সপেয়ার্ড ডোমেইনস ডট নেট expireddomains.net এ চোখ রাখবেন। নিয়মিত চোখ রাখলে মাঝে মাঝে হাজার ডলারে সেল উপযোগী ডোমেইনও আপনি হ্যান্ড রেজিস্ট্রেশন করার জন্য পেয়ে যেতে পারেন। তবে শেষে একটি কথা বলব ডিলিট ডোমেইন এর উপর কখনো শতভাগ নির্ভর করবেন না। আপনি ৩০ দিন চোখ রাখলে যদি ৪ থেকে ৫ টা ভাল ডোমেইন পেয়ে যান সেটাই অনেক। আপনার টোটাল প্রোটফোলিও শতভাগ ডোমেইন যেন হ্যান্ড রেজি বা ডিলিট ডোমেইন থেকে যেন নেয়া না হয় এতে করে আপনার লস করার সম্ভাবনা তৈরি হবে।

ব্যাকঅর্ডার- আপনি যেই ডোমেইনটি পেন্ডিং ডিলিট থেকে পছন্দ করেছেন সেই ডোমেইনটির জন্য আপনার মত হয়ত আরও অনেকে ডোমেইনটি ডিলিট হওয়ার জন্য অপেক্ষা করছে। এখন আপনি চাইলে যে সকল কোম্পানী ব্যাকঅর্ডার সার্ভিস দেয় তাদের কাছে ডোমেইনটির জন্য ব্যাকঅর্ডার দিলেন। উক্ত কোম্পনী আপনার হয়ে ডোমেইনটি রেজিস্ট্রেশন করবে তারপর আপনার একাউন্ট এ ডোমেইনটি দিয়ে দিবে। আর তারা যদি ব্যাকঅর্ডার থেকে ডোমেইনটি নিতে ব্যার্থ হয় তাহলে আপনাকে ব্যাকঅর্ডার সার্ভিসের পুরো টাকা রির্টান করে দিবে। এখানে একটি প্রশ্ন হল যদি একাধিক ব্যাক্তি ডোমেইনটির জন্য ব্যাকঅর্ডার দেয় তাহলে? একাধিক ব্যাক্তি একটি ডোমেইন এর জন্য ব্যাকঅর্ডার দিলে ওই কোম্পানীর অধীনে ডোমেইনটি  একটি উন্মুক্ত অকশনে চলে যাবে সেখানে চাইলে যে কেউ অকশন থেকে ডোমেইনটি ক্রয় করে নিতে পারবে। আবার কিছু কোম্পানী অকশন বা নিলামের ব্যবস্থা না করে যে আগে ব্যাকঅর্ডার দিয়েছিল তাকে ডোমেইনটি সরবরাহ করে আর অন্যদের টাক রিফান্ড করে দেয়। তাহলে আসুন ব্যাকঅর্ডার সার্ভিস দেয় এমন কোম্পানী গুলো সম্পর্কে জেনে নেই-

DropCatch – $59

NameJet – $79

SnapNames – $79

DynaDot – $25

GoDaddy – $25

EPIK-$199

এখানে কোম্পনী তাদের সার্ভিস অনুযায়ী চার্জ কমবেশি করতে পারে। EPIK তাদের লয়াল কাস্টমারদের কে মাত্র $8.49 এ ব্যাকঅর্ডারের সুযোগ দিয়ে থাকে তবে এজন্য আপনার বেশীরভাগ ডোমেইন এপিকে থাকতে হবে।
এপিকের এই অফার সম্পর্কে আরও জানতে ফেসবুক পেজে নক দিতে পারেন EPIK Bangladesh

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!