ডোমেইন ইনভেস্টমেন্ট – প্রাথমিক আইডিয়া, বাস্তবতা এবং ভবিষ্যৎ

ডোমেইন ইনভেস্টমেন্ট কে এই সময়ের সেরা এবং সব থেকে নিরাপদ ব্যবসা বলা হয়ে থাকে। আমাদের দেশে এটা অনেক জনপ্রিয় না হলেও অনেকেই খুব ভালো করছেন এই সেক্টরে।

ডোমেইন হল মূলত একটি নাম, জন্মের পর যেমন আপনার আমার একটি নাম রাখা হয়েছে এবং সে নামেই আমরা পরিচিত। যে ব্যাক্তি যত বিখ্যাত সে ব্যাক্তি ততবেশি দুনিয়াজোড়া মানুষের কাছে পরিচিত।  তেমনি ডোমেইন হল ওয়েবসাইটের নাম, যে নামে এক একটি ওয়েবসাইটকে দুনিয়াব্যাপি মানুষের কাছে পরিচিত করে তোলা হয়। পৃথিবীতে সবচেয়ে জনপ্রিয় বিজনেস এবং এবং ওয়েব সাইটের নাম হল গুগল ডট কম, ফেসবুক ডট কম, এমাজন ডট কম, টুইটার ডট কম কিংবা বাংলাদেশের কথা যদি বলি পাঠাও ডট কম, সহজ ডট কম। প্রতিটি বিজনেসের পুর্বশর্ত হল একটি ভাল নাম, কারন গ্রাহকের কাছে একটি কোম্পানী পৌছাতে হলে সবার আগে কোম্পানীর নাম এবং পন্যকে প্রচার করতে হয়। তেমনি ডোমেইন ইনভেস্ট হল অনেকটা প্রপার্টি ক্রয় বিক্রয় এর মত। এটি একটি ইনভেস্টমেন্ট সেক্টর, এখানে আপনি ডোমেইন বা  প্রপার্টি ক্রয় করবেন তারপর অধিক মুনাফায় বিক্রয় করবেন। এটি কোন ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম নয়। এখানে আপনি যত বেশি ইনভেস্ট করবেন তত বেশি মুনাফার নিশ্চয়তা।

বিশ্বব্যাপী ইন্টারনেট দুনিয়া প্রসারের সাথে অনলাইন ভিত্তিক লেনদেন, ক্রয়-বিক্রয় সব কিছুই বৃদ্ধি পাচ্ছে, তেমনি অনলাইন ভিত্তিক ইন্টভেস্টমেন্ট সেক্টরের প্রসারও হচ্ছে। আজকাল প্রযুক্তি জ্ঞানসম্পন্ন লোকজন শেয়ারবাজার, প্রপার্টি ইনভেস্টমেন্ট এর চেয়ে অনলাইন ইনভেস্টমেন্ট কে বেশি প্রাধান্য দেয় এর কারন অধিক মুনাফা, লস হবার সম্ভাবনা কম। আপনি শেয়ারবাজারে ১ লক্ষ টাকার শেয়ার ক্রয় করে লস করতে পারেন কিংবা ৫ বছরেও মুনাফা না করতে পারেন কিন্তু সেই এক লক্ষ টাকাই যদি আপনি সঠিক ভাবে ৫টি ডোমেইন এর পেছনে ইনভেস্ট করেন তাহলে এটি আপনাকে ব্যাংক, শেয়ার বাজার কিংবা প্রপার্টির চেয়ে অনেক অনেক গুন বেশি মুনাফা দিবে। এখানে মজাটা হল শেয়ারবাজারে আপনি মূলধন হারাতে পারেন কিন্তু ডোমেইন ইনভেস্টমেন্ট সেক্টরে আপনি মূলধন খোয়াবেন না। কিন্তু এর জন্য আপনাকে ইন্ডাষ্ট্রি সম্পর্কে ধারনা নিতে হবে, শিখতে হবে, জানতে হবে এবং সঠিকভাবে বিনোয়াগ করতে হবে।

ইন্টারনেট জ্ঞান সম্পন্ন অনেক লোকও এই সেক্টরটি সম্পর্কে জানে না, আবার অনেকে এটিকে রাতারাতি কোটি টাকা আয়ের মাধ্যম হিসেবে মনে করে। আজ থেকে পনের বিশ বছর আগেও  অনেকেই ৮ ডলার এ ডোমেইন ক্রয় করে ১০-১২-১৫ বছরের মাঝে মিলিয়ন ডলারেও বিক্রয়ের অসংখ্য উদাহরন আছে। কিন্তু আজকের বাস্তবতা কি সেইরকমই আছে? তাহলে আসুন জেনে নেই  ডোমেইন ইনভেস্টমেন্ট সেক্টরে আপনি কিভাবে ইনভেস্ট করে মুনাফা অর্জন করতে পারবেন।

১। রাতারাতি ধনী হওয়ার চিন্তা বাদ দিন- একটি ডমেইন ক্রয় করলেন আর রাতারাতি সেই ডোমেইন বিক্রয় করে ধনী হয়ে যাবেন এমন চিন্তা থাকলে এখুনি বাদ দিন। সহজ একটি বিষয় যদি রাতারাতি ধনীই হওয়া যেত তাহলে সবাই সব কিছু বাদ দিয়ে এটিই করত। আপনার একটি ভাল ডোমেইন থেকে ১০০০ গুন কিংবা তারও বেশি মুনাফা করা সম্ভব, কিন্তু তার জন্য আপনাকে ইনভেস্ট করে সঠিক কাস্টমার খুজে পাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করা লাগবে। আজ একশ ডলার এ ক্রয় করে কাল এক লাখ ডলার যদি বিক্রিই হত তাহলে গতকাল যার কাছে একশ ডলারে ক্রয় করেছেন সে কেন লাখ ডলারে সেল করল না? তাই এটি কখনই আপনাকে রাতারাতি ধনী করবে না, কিন্তু অপেক্ষা করতে পারলে অনেকগুন রির্টান দিবে এই মানিসিকতা তৈরি করুন।

২। এটি একটি সক্রিয় পক্রিয়া-ডোমেইন ইনভেস্টমেন্ট একটি চলমান এবং সক্রিয় পক্রিয়া। দুই দিন আসলেন, দেখলেন তারপর নিষ্ক্রিয় হয়ে গেলেন এমন হলে কখনই আপনার ইনভেস্টমেন্ট কাজে লাগবে না। আপনাকে সক্রিয়ভাবে সম্ভাব্য ক্রেতাদের সন্ধান করতে আপনার সময় এবং শক্তি দিতে হবে। আপনি যদি প্রতিদিন কয়েক ঘন্টা ব্যয় না করেন তবে আপনি সম্ভবত ভাল লাভ করতে পারবেন না।

৩। শিখার জন্য সময় দিন- ডোমেইন ইনভেস্টমেন্ট আপনাকে মুনাফা দিবে তাকে এটিকে শিখার জন্য সময় দিন। আজ একটু জানলেন কয়েকটি ডোমেইন হ্যান্ড রেজিস্ট্রেশন করে ফেললেন এমন হলে আপনার সমূহ লসের সম্ভাবনা থাকবে। আগে শিখবেন জানবেন তারপর প্রতিটি পদক্ষেপ ভেবে চিন্তে দিবেন তবেই ভাল করতে পারবেন। শিখার জন্য প্রথমে এই সাইটের সব লিখাগুলো ক্রমান্বয়ে পড়ে নিতে পারেন। এখানের প্রয়োজনীয় গাইডলাইন অনুযায়ী আপনিই বুঝে যাবেন আপনার কখন কি করতে হবে। আবার রাতারাতি সব লিখাগুলো পড়ে নেয়ার চিন্তা থাকলে সেটিও বাদ দিন।

৪। সব ভাল নাম রেজিস্ট্রেশন শেষ হয় নি- অনেক এই সেক্টরে এসে মনে করেন পৃথিবীর সব ভাল ভাল ডোমেইন নাম ক্রয় করা শেষ। কিন্তু না, সব ভাল ডোমেইন ক্রয় হ্যান্ড রেজিস্ট্রেশন করা শেষ হয়ে যায়নি। আজ থেকে ৫-৭ বছর পর হয়ত এমন প্রজেক্ট আসবে যেটার ডোমেইন এখন রেজিস্ট্রেশন করা হয় নি। তাছাড়া এখনও আপনার কাছে দুই বা তিন শব্দের ভাল ভাল কম্বিনেশনের ডোমেইন ক্রয় করার পর্যাপ্ত সুযোগ রয়েছে।

৫। হ্যান্ড রেজিস্ট্রেশন ডোমেইন নির্ভরশীলতা নয়- বিপুল লাভের জন্য হাত-নিবন্ধিত বা হ্যান্ড রেজিস্ট্রেশন ডোমেইন ইনভেস্ট সম্ভব, তবে মনে রাখবেন যে এটি করে আপনি ৩০০ ডলারের বেশি লাভ করতে পারবেন না। এই ধারণাটিকে একটি লাভজনক কৌশলতে রূপান্তর করতে আপনাকে যথেষ্ট সময় এবং শক্তিও দিতে হবে কারণ এটি যথেষ্ট সময়সাপেক্ষ।

৬। এটি ব্যবসা নয়, ইনভেস্ট- ডোমেইন ইনভেস্টমেন্ট ব্যবসা নয়, ইনভেস্টমেন্ট ইন্ডাস্ট্রি। আপনার কাছে ইনভেস্ট করার মত টাকা থাকলেই ইনভেস্ট করুন। ব্যবসার মত পন্য ক্রয় করে পরের দিন থেকে বিক্রয় করে মুনাফা দিয়ে সংসার চালাবেন এমন হলে এই সেক্টর আপনার জন্য নয়।

৭। প্রথম অবস্থায় এটিকে পার্ট টাইম হিসেবে গ্রহন করুন- ডোমেইন ইনভেস্ট সেক্টরটিকে প্রথম অবস্থায় আপনার আয়ের একমাত্র মাধ্যম হিসেবে নেওয়া হবে মস্ত বড় ভূল। আপনি যখন ইন্ডাস্ট্রির খুঁটিনাটি জানবেন, আপনার একটি ভাল মানের ডোমেইন পোর্টফোলিও তৈরি হবে, যখন দেখবেন মাসে কমপক্ষে একটি কিংবা এক দুইমাস অন্তর অন্তর কমপক্ষে ৫০০ থেকে ১০০০ ডলারে ডোমেইন বিক্রয় হচ্ছে তখন এটিকে আপনি পূর্ণকালীন কাজ হিসেবে গ্রহন করতে পারেন।

এক একটি ডোমেইন এক একটি প্রপার্টি এবং ইউনিক। আপনি একটি ভাল ডোমেইন এর মালিক হলে সেটি চাইলেও পৃথিবীর আর কেউ আপনার কাছ থেকে ক্রয় ব্যাতিত নিতে পারবে না। তাই এর সম্ভাবনা প্রবল। শুধুমাত্র আপনাকে ভাল ডোমেইন ক্রয় করে মার্কেটপ্লেসে বিক্রয়ের জন্য লিস্টিং করে রাখতে হবে। এতে আপনি আপনার আশার চেয়ে অনেকগুন বেশি মুনাফায় বিক্রয় করতে পারবেন। আপনার যদি প্রযুক্তিজ্ঞান, ইনভেস্ট করার মত টাকা( ১০ হাজারও হতে পারে ১ কোটিও হতে পারে) ধৈর্য আর ভাল ডোমেইন ক্রয় করার মত পর্যাপ্ত জ্ঞান থাকে তাহলে ডোমেইন ইনভেস্টমেন্ট সেক্টর হতে পারে আপনার জন্য অগাধ সম্ভাবনাময়। 

error: Content is protected !!